ইসলাম ধর্ম কি নবীর আমল থেকে তৈরি হয়েছে নাকি আরো আগের থেকে?


নাস্তিকদের দাবি ইসলাম নাকি নতুন ধর্ম।নাস্তিক ও হিন্দুদের কাছে আমার প্রশ্ন ৫ হাজার বছর পূর্বে কোন ধর্ম পৃথিবীতে প্রচলিত ছিল? নবীজি বলেন,তিনিই শেষ নবী এবং তার পূর্বে হাজার হাজার নবী এসেছিলেন।ইতিহাস থেকে আমরা জানতে পারি যে
পৃথিবীতে প্রায় ১ লক্ষ ২৪
হাজার নবী রাসুল এসেছিলেন।
এদের মধ্যে ১০৪ জন রাসুল
যারা ওহী লাভ করেছেন। আর কুরআনে ৪ নবীর ধর্ম গ্রন্থের কথা উল্লেখ আছে। আর এই ৪ নবীর মাঝে মূসা নবীর জন্ম হয় প্রায় ৪ হাজার বছর আগে। আর এর আগে যে সব নবীগন এসেছিলেন তার হিসেব ধরলে মানব জাতির প্রথম মানুষ আদম (আ) পর্যন্ত যায়।কারন কুরআনের দাবি আদম (আ) নবী ছিলেন। অবাক হওয়ার মত কথা যে, পৃথিবীতে প্রেরিত সকল নবীই একি বানী প্রচার করে ছিলেন এবং আমাদের নবীও সেই একি বানীই প্রচার করলেন।ধর্ম মানুষের তৈরি।পৃথিবীতে সর্ব প্রথম মানুষেরা যখন ধর্ম সৃষ্টি করল তার আগে পৃথিবীতে কোন ধর্মই ছিলনা কিন্তু তখন এই নবীগনরাই ছিলেন যারা শুধু ঐ বানীটাই প্রচার করেছিলেন যা আমাদের নবীও প্রচার করলেন।আমরা অনেকেই জানিনা ধর্ম মানে কি বা এর সংঙ্গা কি? ধর্ম মানে, রীতি নীতি নিয়ম কানুন etc.এক এক অঞ্চলের মানুষের রীতি নীতি ভিন্ন থাকার কারনে আজ ভিন্ন ভিন্ন ধর্মের জন্ম হয়েছে।আর এর ফলে ঈশ্বরকে ভিন্ন ভিন্ন ভাগে ভাগ করায় এখন প্রতিটি ধর্মে এক একটি করে ঈশ্বরের জন্ম হয়ে গেছে।ইসলাম তেমনি একটা ধর্ম যা মানুষের ধারাই তৈরি হয়েছে আর এই মানুষটি হলেন সেই ব্যক্তি, যাকে সৃষ্টি না করা হলে এই পৃথিবীই সৃষ্টি করা হত না তিনি হলেন হযরত মুহাম্মাদ (স:)।তিনি আদম (আ)থেকে শুরু করে সকল নবীর রিতি নীতি একত্রে বন্দি করে
তিনি সেই রিতি গোলির একটি নাম দিলেন ।আর সেই নামটি হল ইসলাম।হয় ত আল্লাহ এই নামটি দিতে বলেছেন বলেই তিনি এই নামটি দিলেন।তিনি শুধু ধর্মের Titleটা দিলেন বাকি সব ঠিকি রাখলেন এবং একি বানী তিনিও প্রচার করলেন। আর আল্লাহ কুরআনে ঘুষনা করলেন,আল্লাহর কাছে একমাএ গ্রহন যোগ্য দ্বীন হল ইসলাম(৩:১৯)।তার মানে বাকি ধর্ম গোলি আল্লাহ গ্রহন করলেন না।আর আল্লাহ সকল মানব জাতীকে আদেশ দিলেন এই ইসলামে পরিপূর্ন ভাবে প্রবেশ করতে।এখন ধর্মের সংঙ্গা (রিতি নীতি)অনুযায়ী বিচার করলে ইসলামই একমাএ প্রথম ধর্ম যা চলে এসেছে মানব জাতির প্রথম মানুষ আদম (আ) থেকে।আমাদের নবী শুধু এটিকে নামকরণ করে একে পরিপূর্ণাতা প্রদান করলেন মাএ।আর ইসলাম মানেই মুসলমান নয়।যারা আল্লাহর কাছে নিজের ইচ্ছাকে সমর্পণ করল সেই মুসলমান, অর্থ্যাৎ যে আল্লাহর প্রতি ঈমান বা বিশ্বাস স্থাপন করল।হোক সে হিন্দু ঘরের বা খ্রিষ্ট ধর্মের বা কোন ধর্মেরও না।ইসলাম সম্পর্কে ভালোভাবে না জানার কারনেই অনেকে এটিকে মিথ্যা ধর্ম হিসেবে অপবাদ দেন। বুঝশক্তি থাকা কোন ব্যক্তি যদি উপরের আলোচনা বুঝে থাকেন তাহলে হয় ত এখন থেকে না বুঝেই বলবেন না যে ইসলাম ধর্ম মিথ্যা বা নতুন ধর্ম অথবা EtC.

Get involved!

আসুন আমাদের সাথে যুক্ত হোন

বাংলা ভাষায় বিশ্বের ১নং সোস্যাল নেটওয়ার্ক প্লাটফর্ম এ আপনাকে স্বাগতম ! ব্যবহারকারী নাম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন , মুখচ্ছবি-তে নতুন হলে নিবন্ধন করুন !

Comments

কোনোও মন্তব্য নেই