♥ বউ♥ পর্ব:৭ writer:অন্না


,নিশান তিশাকে জোর করে খাইয়ে দিতে গেলে তিশা খাবারের প্লেট টা ছুরে ফেলে দেয়,,,,আর নিশান তিশাকে চড় মারতে গেলে শুভ এসে নিশান এর হাত টা ধরে ফেলে,,,,
,
তিশা::::: আপনি,,,,,,
,
শুভ তিশাকে নিশানের কাছ থেকে টেনে অন্য চেয়ারে বসিয়ে দেয়,,,,,,
,
নিশান::::: sir,,,,,
,
শুভ::::: ইভটিজিং কত বড় অপরাধ তুমি জানো?,,,
,
নিশান:::: don’t worry sir,,,,,,, আমি ওর কাজিন,,,,
,
শুভ:::: ওহ্ তো যেভাবে জোর করছিলে মনে তো হচ্ছিলো না যে ও তোমার বোন,,,,,মনে তো হচ্ছিলো,,,,,
,
নিশান:::: gf তাই না স্যার,,,,, এই মেয়েটা তো বোঝেই না আমি ওরে কতোটা ভালোবাসি,,,
,
তিশা::::: mind your language,,,,আপনি কি ভেবেছেন,,, আপনার যা ইচ্ছা তাই বলবেন আর আমি শুনে যাবো,,,,
,
নিশান:::::behave your self tisa,,,,,,স্যার উনি আমার,,,,,
,
তিশা:::: তো? উনি আমার কে জানেন?
,
নিশান::::: কে?
,
তিশা শুভর দিকে তাকিয়ে চুপ মেরে গেলো,,,,,
,
নিশান:::: কি হলো বলো কে উনি তোমার?
,
তিশা::::: আ,,,,,আমার ও স্যার,,,,,,
,
তিশা চুপ করে চলে আসতে গেলো,,,
,
নিশান:::: খেয়ে যা তিশা নয়তো তোর শরীর আরও খারাপ করবে,,,,
,
তিশা::::: সেটা আপনার ভাবতে হবে না,,,আমাকে নিয়ে ভাবার জন্য আমার পরিবার, আমার হাসবেন্ড আছে,,,,,
,
নিশান:::: হাসবেন্ড my foot,, তুই শুধু আমার, মনে রাখিস,,,,,তোর ভাই এর জন্য তোকে আমি একবার পাইনি,,, কিন্তুু তোকে আমার করেই ছারবো,,,, ,,,
,
নিশান চলে গেলো,,,, শুভ চুপচাপ দাড়িয়ে আছে,,,,কি বলবে ও বলার ভাষা পাচ্ছে না,,,,যতই হোক তিশা ওর বিয়ে করা বউ,,, নিজের সামনে দাড়িয়ে কেউ ওর বউকে থ্রেট দিয়ে চলে গেলো ও কিছু বলতে পারলো না,,,,না চাইতেও শুভর প্রচন্ড পরিমান রাগ হচ্ছে,,,কিন্তুু সেই রাগটা তিশাকে দেখালো না,,,,,,,, তিশার হাত ধরে চেয়ারে বসিয়ে দেয়,,,,তারপর নিজে গিয়ে খাবার এনে তিশাকে খেতে বলে,,,,,
,
তিশা::::: খুদা নাই খাবো না,,,,,,,,,
,
শুভ::::: কেনো? পর পুরুষের কোলে উঠতে খুব ভালো লাগে তাই না?
,
তিশা শুভর মুখের দিকে তাকিয়ে থাকে,,,,,,,
,
শুভ:::: চুপচাপ খেয়ে নিন,,,,,,,,,
,
তিশা::::: (একগাল হেসে) তুমি খাইয়ে দাও না জানু,,,,,,,
,
শুভ::::: এখানে? কেউ দেখবে তো,,,,,
,
তিশা:::: এখানে তো আমার সতীন টা নেই,,, ভয় পাচ্ছো কেনো,,,,,
,
শুভ বুঝতে পারলো না তিশার এই কথাটা শুনে শুভর বুকে হালকা ব্যাথা অনুভব হয়,,,,,,
,
শুভ দুবার তিশার মুখে তুলে খাইয়ে দেয়,,,,
,
শুভ:::: এখন নিজে নিজে খেয়ে নিন,
,
তিশা::::: i love you,,,,
,
শুভ::::: what!
,
তিশা::::: i just love with you,,,,,,
,
শুভ::::: আপনি জানেন আমার জি এফ আছে,,,,আমি শুধু তাকেই ভালোবাসি,,,,,,
,
তিশা::::: আমি শুধু তোমাকে ভালোবাসি,,,,,
,
শুভ:::::: আমি তোমাকে ভালো বাসতে পারবো না,,,,,
,
তিশা:::: ঠিক আছে,,,,আমি মরে গেলে আমার কবরে ভালোবেসে এক মুঠো মাটি দিয়ে দিও,,,সেটা আমার ভালোবাসার শ্রেষ্ঠ পাওনা হবে,,,,,,,
,
কথাটা বলে তিশা উঠে চলে আসলো,,,,,
,
শুভ:::::এই মেয়েটা এমন কেনো? এসব কথা কেউ বলে,,,,ইচ্ছা করছে ঠাটিয়ে একটা থাপ্পর মেরে দেই,,,,,
,
কলেজে আর সারাদিন তিশা আর শুভর দেখা হয়নি,,,,, আসলে তিশা ইচ্ছা করেই শুভর সামনে যায় নি,, সে তো চেয়েছিলো শুভকে নিয়ে ভালোভাবে বাচতে,শুভকে ভালোবাসা দিয়ে ভরিয়ে দিতে,,,কিন্তুু বদ শুভ তো তিশাকে দেখতেই পারে না,,,,কিন্তুু তিশা তো এতো সহজে হার মানবে না,,,,হয় ইহোকাল নয়তো পরোকাল,,,,,,,,,
,
বাসায় এসে শুভ দেখে যে ওর মা বেলকুনিতে পায়চারি করছে,,,,, শুভ কে দেখে ওর মা দৌড়ে আসে ওর সামনে,,,
,
শুভর মা’:::: কি রে বউমা কই?
,
শুভ:::: কেনো ও আসে নি?
,
শুভর মা:::: কেনো তোকে না বলেছিলাম ওকে সাথে নিয়ে আসতে,,,,
,
শুভ:::: ইয়ে মানে,,,,
,
শুভর মা:::: বাহির হ বাড়ি থেকে,,,,,নয়তো তোর বাবা কে বলে রামপিটুনি খাওয়াবো তোকে,,,,তারাতারি বউমাকে নিয়ে আয়,,,,,
,
শুভ তারাতারি বের হয়ে যায়,,, বের হয়ে বাইক নিয়ে বেরিয়ে পরে,,,,,কলেজ এর দিকে যেতেই দেখে তিশা রাস্তা দিয়ে দৌড়ে এদিকেই আসছে,,,মাটি দিয়ে পুরো জামা মেখে আছে,,,,,
,
শুভ তারাতারি বাইক থামিয়ে তিশার সামনে দাড়াতেই তিশা দুহাতে আস্টে পিস্টে শুভকে জরীয়ে ধরে কান্না করতে থাতে,,,,,
,
শুভ::::: কি হয়েছে? এ অবস্থা হলো কি করে আপনার,,,,আর কাদছেন কেনো,,
,
তিশা::::: কু,,,,,,কু,,,,,,,র,,,,,এ্যা,,,,,,,এ্যা,,,,,,,,,,,
,
শুভ::::: আচ্ছা আচ্ছা,,,,relax,, relax,,,,,,
,
শুভ তিশাকে নিয়ে এসে একটা দোকানে বসিয়ে পানি খাইয়ে দেয়,,,,,
,
শুভ::::: মুখে পানি ছিটিয়ে নিন,,,,,,,,,,
,
তিশা মুখ ধুয়ে নেয়,,,,,,
,
শুভ:::::: একা আসতে গেলে কেনো? রিক্সা নাো নি কেনো?
,
তিশা:::” টাকা ছিলো না তো,,,,,
,
শুভ:::: ( ইসসসসস, আমি নিজেই তো টাকা দেই নি তখন,,,আমার জন্যই মেয়েটা এতো কষ্ট পেলো,,,,,) sorry,,,,,
,
তিশা:::: হুহ্ বাসায় চলেন কান ধরিয়ে দাড় করিয়ে রাখবো,,,,তা না করলে আব্বুকে বলে দিবো,,,,,,( কেদে কেদে)
,
শুভ::::: আচ্ছা ঠিক আছে,,,,,, এখন চলেন বাসায়,,,,
,
শুভ তিশাকে নিয়ে সোজা বাসায় চলে আছে,,,,তিশাকে দেখে তো ওর শাশুড়ি হাজার রকম প্রশ্ন শুরু করে,,,,
,
তিশা::::: আসলে,,,,,কলেজে একপাশে কাদা ছিলো,,,আমি না দেখে পা দিয়ে দিয়েছিলামম আর পা পিছলে পরে গেছি,,,,,,,
,
এটা শুনে তো ওর শাশুরি আরও অস্থির হয়ে যায়,,,,
,
শুভর মা:::: আহারে,,,,কোথাও লাগেনি তো,,,,দেখি তো,,, বল আমায়,,,,,,
,
তিশা::::: না আম্মু লাগেনি,,,আমি ফ্রেস হয়ে আসি,,,,,
,
তিশা রুমে চলে গেলো,,,,,,,
,
শুভর মা::::: শুভ,,,,,
,
শুভ::::: আমি কিন্তুু কিছু করিনি,,,,আমাকে বকবা না,,,,,,,,
,
শুভ রুমে এসে দেখে তিশা বিছানায় বসে আছে,,,,,
,
শুভ ওয়াসরুমে যেতে নিলে তিশা পিছে থেকে ডেকে ওঠে,,,,
,
তিশা::::: কই যাচ্ছো?
,
শুভ::::ফ্রেস হতে,,,,
,
তিশা:::: না,,,আমি আগে যাবো,,,,কতক্ষন তুমি কান ধরে দাড়িয়ে থাকো,,,,,
,
শুভ::::: what!
,
তিশা::::: তারাতারি,,,,,, নাহলে আব্বুকে ডাক দিবো,,,,,,
,
শুভ:;:::: প্লিজ,,,,,,
,
তিশা:::::: তোমার বউ তো আমি,,,লজ্জা করছো কেনো গো?
,
শুভ::::: তোমার লজ্জা বলতে কিছু নাই তাই না?
,
তিশা::::::একদম নাহ্ ,,, বর এর সামনে লজ্জা কিসের,,,,,
,
শুভ::::: না ধরলে হয় না?
,
তিশা::::: না, হয় না,,,,তারাতারি,,,,,কলেজে কি যেনো বলেছিলেন,,,,ওওওও হ্যা মনে পরেছে,,,, কলেজে থাকতে হলে কলেজের ডিসিপ্লিন মেনে চলতে হবে আমাকে,,তো এখন এ রুমে থাকতে হলে আমার ডিসিপ্লিন মেনে চলতে হবে,,,,ক্লিয়ার?
,
শুভ:::: এখানে কলেজ এর টপিক আসলো কি করে?
,
তিশা::::: ওখান থেকেই,,,,,আমাকে আজ বকা দিয়েছেন সবার সামনে,,, তাও দু,দুবার,,,,,, মনে আছে?,,,,
,
শুভ:::::ওটা তো,,,,
,
তিশা:::: জানি,,,,,
,
শুভ:”’ কি যানেন?
,
তিশা:::: হিংসে করে,,,,
,
শুভ:::::what! impossible,,,,,
,
তিশা::::: এতো কথা তো শুনতে চাচ্ছি না,,,কান ধরবেন কি না?
,

শুভ আর কিছু না পেরে কান ধরে দাড়িয়ে পরে,,,,,,,তিশা হাসতে হাসতে ওয়াসরুমে ঢুকে পরে,,,,,
,
শুভ::::: আল্লারে এই ছিলো কপালে,,,,শেষ মেশ কান ধরে দাড়িয়ে থাকতে হচ্ছে,,,তাও বউ এর কথায়,,,,, আল্লাহ্ জানে আমার কপালে আর কি কি আছে,,,এই মেয়েটা যে আমার বি অবস্থা করে দিবে কে যানে,,,,,ইরা,,,,,, কই তুমি জান,,,,,,
,
তিশা::::: কি ভাবছেন এতো মনে মনে?
,
,শুভ আবার তিশাকে দেখে ক্রাশ খায়,,,,তিশা শাড়ি পেচিয়ে ওয়াসরুম থেকে বের হয়,, আর চুল বেয়ে পানি টপটপ করে পরছে,,,,,,শুভ হা করে তিশার দিকে তাকিয়ে আছে,,,,,,

,
শুভ:::::: কিছুনা,,,এবার কান ছারতে পারি?
,
তিশা::::: হ্যা,,,,,
,
শুভ ওয়াস রুমে যেতে নিলে তিশা আবার ডাক দেয়,,,,
,
শুভ::::: আবার কি হলো?
,
তিশা::::: শাড়ি টা পরিয়ে দাও না জানু,,,,,,,
,
শুভ::::: পারি না আমি,,,,
,
তিশা:::: প্লিজ,,,আমি পরতে পারছি না,,,,,,,
,
শুভ:::: আল্লাহ্,,,,,যেটা পারোনা,,,সেটা করতে বলছে কে তোমাকে?
,
তিশা:::’: থাক লাগবে না পড়া শাড়ি,,,,
,
তিশা মন খারাপ করে ওয়াসরুমে যেতে নিলো,,,,
,
শুভ:::: থাক যেতে হবে না,,,,আসেন পরিয়ে দিচ্ছি,,,,
,
তিশা খুসিতে শাড়ি ধরে দৌড়ে এসে শুভর গালে কিস করে দেয়,,,,,,,
,
শুভ গালে হাত দিয়ে দাড়িয়ে থাকে,,,,,
,
be continue ♥♥♥♥

পোষ্টটি আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন !
Share on Facebook
Facebook
1Pin on Pinterest
Pinterest
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

Leave a Reply